সিটি নির্বাচন নিয়ে শেখ হাসিনার নির্দেশনা

Jan 06, 2020 06:28 am
শেখ হাসিনা

 

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের বিজয় নিশ্চিতে সমন্বিতভাবে কাজ করতে নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গত শনিবার রাতে গণভবনে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ও উপদেষ্টা পরিষদের মুলতবি যৌথসভায় এ নির্দেশ দেন তিনি। এ সময় নির্বাচনের আগে রাজধানীতে বিদ্যুৎ, গ্যাস ও হোল্ডিং ট্যাক্স যাতে না বাড়ানো হয় সে বিষয়ে সরকারকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন নেতারা। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে। এর আগে শুক্রবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। পরে সভা মুলতবি করে গত শনিবার রাত ৯টায় তা শেষ হয়।

শেখ হাসিনাকে উদ্ধৃত করে বৈঠকে উপস্থিত কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, নেত্রী বলেছেন, আমাদের মেয়র প্রার্থী সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য। আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করলে বিজয় আসবেই।

শেখ হাসিনা আরো বলেন, অতীতে দেখা গেছে আমাদের সংসদ সদস্যরা মেয়রের চেয়ে কাউন্সিলর প্রার্থীদের নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। এবার এমন কোনো ঘটনা ঘটলে ব্যবস্থা নেয়া হবে তাদের বিরুদ্ধে। সভায় নির্বাচনী কোনো সমস্যা থাকলে দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদের সাথে বসে আলোচনা করে সমাধান করার নির্দেশ দেন তিনি। বৈঠকে বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থীদের বসিয়ে দিতে দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের ব্যবস্থা নিতে বলেন।

বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতা বলেন, প্রায় আড়াই ঘণ্টাব্যাপী চলা বৈঠকে দলের কয়েকজন সিনিয়র নেতা বক্তব্য রাখেন। দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা তাদের বক্তব্য শোনেন ও মতামত দেন। সিনিয়র নেতাদের মধ্যে কথা বলেন উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, কাজী আকরাম উদ্দিন, মহিউদ্দিন খান আলমগীর, সুলতানা সফি, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন প্রমুখ। নেতারা আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে কথা বলেন।

সভা থেকে দলীয় প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিতে ঢাকার সংসদ সদস্যদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় কয়েকজন নেতা সিটি নির্বাচনের আগে গ্যাস, বিদ্যুৎ ও হোল্ডিং ট্যাক্স যাতে না বাড়ে সে ব্যাপারে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন। কারণ এতে নির্বাচনে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে আশঙ্কা তাদের। জবাবে প্রধানমন্ত্রী সেই আশঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে বলেন, এগুলো কেন হবে? বর্তমানে আমাদের এলএনজি গ্যাস পর্যাপ্ত রয়েছে।

বৈঠকে উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুলতানা সফি ঢাকা দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকনের বিষয়ে কথা বলেন। জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, সমস্যা নেই। ওতো কাজ করছে। ওর অনেক শুভাকাক্সক্ষী আছে। তার সহযোগিতা আমাদের দরকার। তাকে নির্বাচন প্রক্রিয়ায় যোগ করতে হবে।