Installateur Notdienst Wien webtekno bodrum villa kiralama

চিত্রনায়িকা সুচরিতা লাঞ্ছিত : কী হয়েছিল?

Jan 16, 2020 07:04 am
চিত্রনায়িকা সুচরিতা লাঞ্ছিত

 

শুটিং স্পটে পরিচালকের বিরুদ্ধে অসদাচরণের অভিযোগ আনলেন একসময়ের জনপ্রিয় নায়িকা সুচরিতা। এ ঘটনায় পাবনা থেকে এফডিসিতে ফিরে কাঁদলেন তিনি। এরপর ঘটনার বিস্তারিত জানিয়ে শিল্পী সমিতির কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

লিখিত অভিযোগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী সুচরিতা উল্লেখ করেন, ‘বসন্ত বিকেল’ ছবিতে অভিনয় করার কথা ছিল। শুটিংয়ের জন্য পাবনা যান তিনি। কিন্তু পরিচালক রফিক শিকদার সুচরিতার শুটিং না করে সারা দিন বসিয়ে রাখেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে তার সাথে তিনি অসদাচরণ করেন, গালাগাল করেন। দু’জনের বাগি¦তণ্ডার একপর্যায়ে তাকে মারতে যান পরিচালক, যে কারণে শুটিং রেখে ঢাকায় চলে আসেন সুচরিতা।

অভিযোগের ব্যাপারে পরিচালক রফিক শিকদার বলেন, ‘সুচরিতা আপা শুটিংয়ের জন্য তাড়া দিচ্ছিলেন। তখন দিনের আলোয় শুট চলছিল। নায়িকার কিছু অভিনয় দৃশ্যের চিত্র ধারণের জন্য দিনের আলো প্রয়োজন ছিল। সুচরিতা আপার দিনের আলোয় শুট ছিল না। বেলা ২টায় আমি তাকে বলি, ‘আপু, নায়িকার কয়েকটি দৃশ্য আছে, সূর্যের আলো পড়ে গেলে নিতে পারব না। আজকের দিন তো শেষ। তাই আপনি বিশ্রাম করুন।’

রফিক শিকদারের দাবি, এরপর নাকি সুচরিতা তার ছোট ভাইকে ডেকে দেরি হওয়ার জন্য শিকদারকে গালাগাল করেন। একই আচরণ করেন শিকদারের সহকারীর সাথেও। পরে রফিক শিকদার নিজে গেলে তার সামনেও তাকে গালাগাল করেন সুচরিতা। রফিক প্রতিবাদ করলে তার সাথে তর্ক হয়। কিন্তু মারার জন্য এগিয়ে যাওয়ার মতো কিছু হয়নি বলে দাবি করেন তিনি।

রফিক শিকদার বলেন, ‘শুনেছি, ঢাকায় এসে শিল্পী সমিতিতে অভিযোগ করেছেন। শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদকও আমাকে ফোন করে নানা হুমকি দেন, গালাগাল করেন। আমিও আমাদের পরিচালক সমিতি এবং প্রযোজক সমিতিতে অভিযোগ করব।’

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক জায়েদ খান বলেন, যদি আপা রাগও করে থাকেন, তাহলেও রফিক শিকদারের মতো একজন জুনিয়র পরিচালকের উচিত ছিল চুপ থাকা। ঠাণ্ডা মাথায় পরিস্থিতি মোকাবেলা করা। মনে রাখতে হবে, সুচরিতা আপা শুধু একজন শিল্পীই নন, একটি অধ্যায়। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে তার অবদান অনেক। তিনি শিল্পী সমিতির আজীবন সদস্য। তিনি বলেন, সুচরিতা আপা সমিতির অফিসে এসে রীতিমতো কেঁদেছেন।

তিনি জানান, এই পরিচালকের বিরুদ্ধে এর আগেও বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে। তবে পরবর্তী সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত আপাতত সমিতির সব সদস্যকে পরিচালক রফিক শিকদারের যেকোনো শুটিং ও ডাবিং থেকে বিরত থাকার অনুরোধ করা হয়েছে। আমার বিশ্বাস, পরিচালক সমিতি এ ব্যাপারে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করবেন।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী সুচরিতার আসল নাম বেবী হেলেন হলেও ঢাকাই চলচ্চিত্রে সুচরিতা নামেই পরিচিত তিনি। তার অভিনয়জীবন শুরু হয়েছিল শিশুশিল্পী হিসেবে। পরে বহু চলচ্চিত্রে নায়িকা হিসেবে অভিনয় করে প্রতিষ্ঠা পেয়েছেন তিনি। ১৯৭২ সালে আজিজুর রহমান পরিচালিত ‘স্বীকৃতি’ ছবিতে প্রথম নায়িকা হিসেবে কাজ করেন সুচরিতা। ১৯৭৭ সালে আবদুল লতিফ বাচ্চু পরিচালিত ‘যাদুর বাঁশী’ ছবিটি তাকে জনপ্রিয় করে তোলে। ইলিয়াস কাঞ্চন, ওয়াসিম, উজ্জ্বলসহ বিভিন্ন নায়কের সাথে বেশ কিছু রোমান্টিক ছবিতে অভিনয় করে দর্শকনন্দিত হন তিনি।