Installateur Notdienst Wien roblox oynabodrum villa kiralama
homekoworld
knight online pvp
ko cuce

মাশরাফি যেখানে সবাইকে ছাড়িয়ে

Mar 08, 2020 10:20 am
মাশরাফি

 

দেশের জার্সিতে মাশরাফির বর্ণাঢ্য অধিনায়কত্বের সমাপ্তি ঘটল। গত শুক্রবার (৬ মার্চ) সিলেটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে শেষবারের মতো জাতীয় দলকে নেতৃত্ব দেন তিনি। এ ম্যাচে লিটন-তামিমের রেকর্ড জুটিতে ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ১২৩ রানে জিতেছে বাংলাদেশ। ৩-০তে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করে ৫০তম জয় পেলেন অধিনায়ক মাশরাফি। প্রথম বাংলাদেশী অধিনায়ক হিসেবে এ রেকর্ড গড়লেন নড়াইল এক্সপ্রেস। শুধু কি তাই! আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও অধিনায়ক হিসেবে জয়ের দিক থেকে ছাড়িয়ে গেলেন ইমরান খান, সৌরভ গাঙ্গুলি, অর্জুনা রানাতুঙ্গা ও ব্রায়ান লারার মতো শক্তিশালী অধিনায়কদের।

লিটন দাস ওয়ানডেতে বাংলাদেশের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ স্কোরের রেকর্ড গড়েছেন। তামিম ইকবাল তার সঙ্গী হয়ে উদ্বোধনী জুটিতে বাংলাদেশের হয়ে রেকর্ড গড়েছেন। যেকোনো উইকেটের রেকর্ড থেকেও সরিয়ে দিয়েছেন মাহমুদুল্লাহ ও সাকিব আল হাসানকে। এক ম্যাচ বিরতি দিয়ে মাঠে ফিরেই ৪ উইকেট পেয়েছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। কিন্তু সিলেটে সবাইকে ছাপিয়ে দিনটি ছিল শুধুই মাশরাফি বিন মর্তুজার দিন। অধিনায়ক হিসেবে বিদায়ী ম্যাচে সম্ভাব্য সেরা উপহারই পেয়েছেন। ইতিবাচক সব রেকর্ডে দেশের ইতিহাস সমৃদ্ধ হয়েছে। নিজেও ছুঁয়েছেন অনন্য এক মাইলফলক।

অধিনায়ক হিসেবে দ্বিতীয় স্থানে থাকা হাবিবুল বাশার জিতেছেন ২৯টি ম্যাচ। বর্তমানে খেলা তারকাদের মধ্যে সাকিবের নেতৃত্বে বাংলাদেশ জিতেছে ২৩টি ওয়ানডে। মাশরাফি থেকে হাবিবুল বাশার পিেিছয়ে ২১ আর সাকিব আছেন ২৭ জয় দূরে। নিষেধাজ্ঞার কাটিয়ে নেতৃত্ব পেলেও মাশরাফির এ রেকর্ড ভাঙতে সাকিবকে পাড়ি দিতে হবে অনেক পথ। দেশের ক্রিকেট ইতিহাসে মাশরাফির এ অর্জন প্রথম। তবে বিশ্ব ক্রিকেটে এর আগে এমন কীর্তি গড়েছেন ২৪ জন অধিনায়ক।

এর মধ্যে তিনজন অধিনায়কের রয়েছে শততম ওয়ানডে জয়ের বিরল রেকর্ড। জয়ের সংখ্যায় সবার ওপরে অস্ট্রেলিয়ার দুইবারের বিশ্বকাপ জয়ী রিকি পন্টিং। ২০০২-২০১২ সাল পর্যন্ত তার নেতৃত্বে ২৩০ ম্যাচে ১৬৫টিতে জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। এরপরেই আছেন ২০১১ বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। ২০০৭-২০১৮ সালের মধ্যে ২০০টি ম্যাচে ভারতকে নেতৃত্ব দেন ক্যাপ্টেন কুল। আর এ সময়ে টিম ইন্ডিয়ার জয় ১১০টিতে। তৃতীয় স্থানে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক অ্যালান বোর্ডার। তার নেতৃত্বে ১৭৮ ম্যাচের মধ্যে ১০৭টিতে জিতেছে অজিরা। আর একটির জন্য সেঞ্চুরি পেলেন না দক্ষিণ আফ্রিকার পরলোকগত অধিনায়ক হ্যানসি ক্রোনিয়ে। সে হিসেবে মাশরাফি বেশ পিছিয়ে।

ক্রিকেট বিশ্বে ২৫ জন অধিনায়কের ওয়ানডেতে জয়ের ফিফটি আছে। তবে অধিনায়কত্বের সফলতা শুধু জয় দিয়ে পরিমাপ না করে ম্যাচের হিসেবটাও গুরুত্বপূর্ণ। নেতৃত্বের শুরুতে জয়-পরাজয়ের অনুপাতে সেরাদের কাতারেই ছিলেন মাশরাফি। কিন্তু ২০১৮ সাল থেকে ধীরে ধীরে সেটা কমে আসে। তবু ৮৮ ম্যাচে ৫০টি জয় একেবারেই মন্দ না। জয়ের অনুপাতে তার নেতৃত্বে ৫৮.১৩ শতাংশ ওয়ানডে জিতেছে বাংলাদেশ। জয়ের সংখ্যায় মাশরাফি ২৫তম হলেও জয়ের অনুপাতে আছেন ১৭তম স্থানে। সেরা পঁচিশে জয়ের হারে মাশরাফির চেয়ে পিছিয়ে আছেন আরো দশজন। জয়ের শতকরা হিসেবে মাশরাফির নিচে অবস্থান করছেন বিশ্বকাপ জয়ী ইমরান খান (৫৫.৯২ ভাগ), অর্জুনা রানাতুঙ্গা (৪৮.৩৭ ভাগ), ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি (৫৩.৫২ ভাগ) ও কিংবদন্তি ব্রায়ান লারা (৫০ ভাগ)।

অস্ট্রেলিয়ার মাইকেল ক্লার্ক মাশরাফির মতোই ৫০ জয় পেলেও তার অধিনায়কত্বে অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ খেলেছে ৭৪টি। ফলে জয়ের হারে ক্লার্ক বেশ এগিয়ে (৬৭.৫৭ ভাগ)। তার চেয়েও এগিয়ে আছেন এখন পর্যন্ত বৈশ্বিক ট্রফি না জেতা বিরাট কোহলি (৬৯.৬৬)। দুইজন বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক অ্যালান বোর্ডার (৬১.১১) ও ইয়ন মরগান (৬০.৫৩) আছেন এখানেই। অধিনায়ক হিসেবে সফলতায় পিছিয়ে ছিলেন না ওয়াসিম আকরাম (৬০.৫৫), গ্রায়েম স্মিথ (৬১.৩৩), শন পোলকরাও (৬১.৮৫)। সমান ৬৭টি ম্যাচে জয় পেলেও স্টিভ ওয়াহকে (৬৩.২১) একটুর জন্য পেছনে ফেলেছেন ভিভ রিচার্ডস (৬৩.৮১)। সবার স্পর্শের বাইরে আছেন ক্লাইভ লয়েড। দু’টি বিশ্বকাপজয়ী এই অধিনায়ক মাত্র ৮৪ ম্যাচেই পেয়েছেন ৬৪টি জয়। ৭৬.১৯ ভাগ সাফল্যের গল্পের পরেই আছেন রিকি পন্টিং ও হ্যান্সি ক্রনিয়ে। দুইজনই নেতৃত্ব দিয়ে ৭১.৭৪ ভাগ ম্যাচে জয় পেয়েছেন।

মাশরাফির চেয়ে পিছিয়ে আছেন যেসব অধিনায়ক


নাম দেশ ম্যাচ জয় গড়
মাশরাফি বাংলাদেশ ৮৮ ৫০ ৫৮.১৩
ফ্লেমিঙ্গো নিউজিল্যান্ড ২১৮ ৯৮ ৪৮.০৪
রানাতুঙ্গা শ্রীলঙ্কা ১৯৩ ৮৯ ৪৮.৩৭
আজহার ভারত ১৭৪ ৯০ ৫৪.১৬
গাঙ্গুলি ভারত ১৪৭ ৭৬ ৫৩.৫২
ইমরান খান পাকিস্তান ১৩৯ ৭৫ ৫৫.৯২
ব্রায়ান লারা ও. ইন্ডিজ ১২৫ ৫৯ ৫০.০০
পোটারফিল্ড আয়ারল্যান্ড ১১৩ ৫০ ৪৭.৬৬
ম্যাথিউস শ্রীলঙ্কা ১০৬ ৪৯ ৪৯.০০


 

ko cuce /div>

দৈনিক নয়াদিগন্তের মাসিক প্রকাশনা

সম্পাদক: আলমগীর মহিউদ্দিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: সালাহউদ্দিন বাবর
বার্তা সম্পাদক: মাসুমুর রহমান খলিলী


Email: [email protected]

যোগাযোগ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।  ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Follow Us