রোদ থেকে বাঁচান ত্বক

Sep 29, 2019 04:37 pm
রোদ থেকে বাঁচান ত্বক

 

গরম হোক বা শীত, রোদের দেখা মোটামুটি প্রতিদিনই পাওয়া যায় আমাদের দেশে। রোদের মাঝেই আমাদের প্রতিদিন বাইরে বের হতে হয়। ফলে ছোটবেলা থেকেই রোদের সাথে আমাদের সখ্য। তাই আমাদের যা খেয়াল থাকে না তা হলো, সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি আমাদের ত্বকের কতটা ক্ষতি করে। এটি আমাদের ত্বকের মেলানিন উৎপাদন বৃদ্ধি করে ত্বক কালো করে দেয়। সাধারণত ত্বকের যেসব অংশ খোলা থাকে যেমন মুখ, গলা, ঘাড়, হাত ও পায়ের পাতা রোদে পোড়ে বেশি। রোদে পুড়ে ত্বক শুধু কালোই হয় না, ত্বকে আরো অনেক ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। যেমন ব্রণ, মেছতা, বলিরেখা, কালো ছোপ ছোপ দাগ, সানবার্ন এমনকি স্কিন ক্যান্সার পর্যন্ত হয়ে থাকে অতিরিক্ত রোদের সংস্পর্শে গেলে। আমাদের দেশের জলবায়ুর কারণে রোদ এড়িয়ে চলা খুব কঠিন হতে পারে, কিন্তু রোদে পোড়া কালো দাগ দূর করা কঠিন নয়। আপনার সুবিধামতো নিচের প্যাকগুলোর যেকোনো একটি বেছে নিন। লিখেছেন-কাজী তানজিলা মেহনাজ


ষ ১ টেবিল চামচ শশার রস, ১ টেবিল চামচ গোলাপজল ও আধা চা চামচ লেবুর রস একসাথে মিশিয়ে তুলার সাহায্যে রোদে পোড়া জায়গায় লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন বাইরে থেকে ঘরে ফিরে এই প্যাকটি লাগাতে হবে। শশা ও লেবু দুটোতেই আছে শক্তিশালী ব্লিচিং উপাদান। লেবুতে আছে ভিটামিন সি ও সাইট্রিক এসিড যা ত্বকের রঙ ফর্সা করে। ভিটামিন সি ত্বকের সব ড্যামেজ পূরণ করে।

ষ ২ টেবিল চামচ বেসন, ৬ টেবিল চামচ কাঁচা দুধ, ১ চিমটি হলুদ গুঁড়ো, ১ চা চামচ কমলার খোসা গুঁড়ো একসাথে মিশিয়ে একটি পেস্ট বানিয়ে নিন। ত্বকে লাগিয়ে শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ভিজিয়ে ঘষে ঘষে স্ক্রাব করে ধুয়ে নিন। আপনার ত্বক তৈলাক্ত হলে দুধের বদলে টকদই ব্যবহার করুন। বেসন ত্বকের ময়লা দূর করে, হলুদ ত্বকের জীবাণু দূর করে, দাগ ও কালভাব দূর করে ও ত্বকে দেয় সুন্দর একটি আভা।

ষ আধাকাপ পেঁপে হাত দিয়ে চটকে নরম করে নিতে হবে। এতে ১ টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে পোড়া জায়গায় লাগিয়ে ৩০ মিনিট রাখতে হবে। ৩০ মিনিট পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। পেঁপের মধ্যে থাকা এনজাইম ত্বকের যেকোনো দাগ হালকা করে দেয়, ত্বকে নতুন কোষের জন্ম দেয়। মধু ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করে ও জীবাণু দূর করে।

ষ ২ টেবিল চামচ টমেটো পেস্ট, ১ চা চামচ লেবুর রস ও ১ টেবিল চামচ টকদই একটি পাত্রে নিয়ে মিশিয়ে নিন। মুখে ও হাতে পায়ে পোড়া জায়গায় লাগান। শুকাতে দিন। স্বাভাবিক তাপমাত্রার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। টমেটোর পেস্ট ত্বকে লাগালে প্রথম প্রথম একটু চুলকায়। নিয়মিত লাগালে চুলকানি কমে আসবে। টমেটো রোদে পোড়া ত্বক সারিয়ে তোলার পাশাপাশি ত্বকের লোমকূপের আকার ছোট করে।

ষ ১ টেবিল চামচ মসুর ডাল কয়েক ঘণ্টা পানিতে ভিজিয়ে রেখে পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার একসাথে এলোভেরার ভেতরের জেল ১ চা চামচ এবং ১ টেবিল চামচ টমেটো পেস্ট মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। রোদে পোড়া ত্বকে ২০ মিনিটের জন্য লাগান। তারপর ধুয়ে ফেলুন। মসুর ডাল রোদে অনেক বেশি পুড়ে যাওয়া ত্বক সারাতেও সক্ষম। এলোভেরা পোড়া ত্বক সুস্থ করে, আর টমেটো ত্বকের নতুন কোষ বৃদ্ধি করে, ত্বককে নতুন করে তোলে ভেতর থেকে।

ষ ১ টেবিল চামচ টকদই, ১ টেবিল চামচ কমলার রস একসাথে মিশিয়ে ৩০ মিনিটের জন্য লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। কমলায় আছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি, যা নতুন কোষ জন্ম দেয়, দাগ কমায়, গায়ের রঙ ফর্সা করে। রোদ যেমন ত্বকে বলিরেখা সৃষ্টি করে, কমলায় থাকা কোলাজেন তেমনি ত্বকের ভাঁজ ও বলিরেখা প্রতিরোধ করে।

ষ আলু দাগ কমাতে সাহায্য করে। ৩ টেবিল চামচ আলুর রস ও ১ টেবিল চামচ লেবুর রস একসাথে মিশিয়ে তুলা দিয়ে রোদে পোড়া জায়গায় লাগাতে হবে। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। আলুতে আছে বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন ও মিনারেল। এ ছাড়াও আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, যা রোদে পোড়া ত্বক সারায় খুব তাড়াতাড়ি।

ষ ১ টেবিল চামচ মধু, ২ টেবিল চামচ গুঁড়ো দুধ, কয়েক ফোঁটা আমন্ড অয়েল একসাথে মিশিয়ে ত্বকে লাগান। ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকের রোদে পোড়া দাগ দূর করে ও ত্বক সুন্দর ও মসৃণ ও উজ্জ্বল করে।
ষ আনারসের রস ২ টেবিল চামচ, মধু ১ টেবিল চামচ মিশিয়ে রোদে কালো হয়ে যাওয়া ত্বকে লাগান। ১০ মিনিট পর ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। আনারসে থাকা এনজাইম ত্বকের মরা কোষ দূর করে। আনারসে থাকা ভিটামিন সি ত্বকের দাগ দূর করে, মেছতা প্রতিরোধ করে, ত্বকের রঙ ফর্সা করে ও ত্বকের বুড়িয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াকে থামিয়ে দেয়।

ষ ৮ টেবিল চামচ কাঁচা দুধ, ১ চিমটি হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে তুলার সাহায্যে রোদে পোড়া ত্বকে লাগাতে হবে। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। কাঁচা গরুর দুধ যেকোনো কালো দাগ দূর করতে সক্ষম। রোদে পোড়া দাগ হোক বা ব্রনের দাগ, দুধ সব কিছুকেই হার মানায়। দুধ ও হলুদ গুঁড়ো একসাথে কাজ করে রোদে পোড়া ত্বককে খুব দ্রুত স্বাভাবিক অবস্থায় নিয়ে আসতে সক্ষম।

ষ এই প্রতিকারটি সম্পর্কে খুব কম মানুষই জানে। বাঁধাকপির ২টি বড় বড় পাতা নিন। ধুয়ে ফ্রিজে রাখুন। পাতা দুটো ঠাণ্ডা হয়ে গেলে পুরো মুখে পাতা দুটো বিছিয়ে দিন যেন চামড়ার সাথে লেগে থাকে। খেয়াল রাখবেন যেন পুরো মুখ ঢেকে থাকে। ২০ মিনিট এভাবে চোখ বন্ধ করে শুয়ে থাকুন। বাঁধাকপিতে আছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন এ, সি ও কে। রোদে পোড়া ত্বকে বাঁধাকপি খুব ভালো কাজ করে।